ঢাকা, May 20, 2019, 4:28 a.m.

বিশ্বকাপের ১০ দেশের আনলাকি স্কোয়াড দেখেনিন

সিনিয়র রিপোর্টার

প্রকাশিত: April 24, 2019, 8:17 p.m.

নিউজটি মোট 8747 বার পঠিত হয়েছে

আর মাত্র কটা দিন , এরপরই ইংল্যান্ড এবং ওয়েলস এ পর্দা উঠবে ক্রিকেটের সবচেয়ে বড় আসর ক্রিকেট বিশ্বকাপ । প্রতিটি ক্রিকেটারেরই স্বপ্ন থাকে দেশের হয়ে বিশ্বকাপ খেলার , কারো স্বপ্ন পূরণ হয় কারো অধরাই রয়ে যায় ।

আসন্ন বিশ্বকাপকে উপলক্ষ করে উইন্ডীজ ছাড়া বাকি ৯ টি দল তাদের ১৫ জনের প্রাথমিক স্কোয়াড দিয়েছে । এতে কারো ভাগ্য খুলেছে কারো কারো কপাল পুড়লেও এখনো সুযোগ আছে শেষ মুহুর্তে কারো ইঞ্জুরি বা মানসিক ভাবে আনফিট খেলোয়াড় এর বদলে দলে জায়গা করে নেয়ার ।

আজকের পোস্টে বিশ্বকাপে বাদ পড়াদের নিয়েই ১৫ জনের একটি স্কোয়াড গঠন করা হয়েছে ,যেহেতু উইণ্ডিজ দল ঘোষণা করেনি তাই এই স্কোয়াডে থাকছেনা কোন উইন্ডীজ প্লেয়ার । বাকি ৯ টি দলের বাদ পড়াদের নিয়ে গঠন করা হয়েছে এই স্কোয়াড ।

১। ইমরুল কায়েস ( বাংলাদেশ) ;

দেশীয় ক্রিকেটপাড়ায় এই মুহুর্তে সবচাইতে আলোচিত নাম ইমরুল কায়েস। কায়েস তার সর্বশেষ ৫ ওয়ানডেতে ৭০ গড়ে প্রায় ৩৫৩ রান করেছেন । শুধু তাই নয় কায়েসের রয়েছে দুইটি বিশ্বকাপ খেলার অভিজ্ঞতা , যেখানে একটিতে রয়েছে একমাত্র বাংলাদেশী হিসেবে বিশ্বকাপে পরপর দুই ম্যাচে ম্যাচসেরা হওয়ার অর্জন । সম্প্রতি ২০১৭ সালের চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতেও ছিলেন কায়েস । তারপরেও ম্যানেজমেন্ট এর ভাষ্যমতে ওপেনিং এ ডান হাতি - বা হাতি কম্বিনেশান গড়তেই কায়েস এর বদলে লিটনকেই বেঁছে নিয়েছেন তারা ।

২। রেজা হেন্ড্রিক্স (সাউথ আফ্রিকা )

গত দুই বছরে সাউথ আফ্রিকার দলে নিয়মিত মুখ রেজা হেন্ড্রিক্স । ১৮ ম্যাচে ২৭ গড়ে ৪৫৫ রান করেছেন । হাশিম আমলার অফ ফর্মে হেন্ড্রিস্কই ছিলেন মূল দলে জায়গার দাবীদার । এমনকি ২০১৮ মানসি সুপার লিগেও দুর্দান্ত পারফর্ম করেছেন এই ওপেনার । দলের প্রয়োজনে নাম্বার থ্রি হিসেবেও খারাপ নন । কিন্ত তারপরেও নির্বাচকরা অভিজ্ঞ হাশিম আমলাকেই বেছে নিয়েছেন ।

৩। পিটার হ্যাণ্ডসকম্ব ( অস্ট্রেলিয়া)

২০১৭ তে অভিষেক , ক্যারিয়ারে ২১টি ওয়ানডের ১৩টিই খেলেছেন ২০১৯ সালে । এই ১৩ টি ওয়ানডেতে ১টি সেঞ্চুরি ও তিনটি হাফসেঞ্চুরিসহ ৪৪ গড়ে করেছেন ৪৭৯ রান । স্ট্রাইকরেট ৯৮ । শুধু তাই নয় ,গ্লাভস হাতেও বেশ পারদর্শী তিনি । কিন্তু তাতেও মূল দলে জায়গা মেলেনি তার ।

৪। আম্বাতি রায়াডু ( ভারত)

ভারতের ব্যাটিং অর্ডার এর সবচেয়ে বড় সমস্যা চার নাম্বার পজিশান । ২০১৮ এর শেষ পর্যন্ত রায়াডু বিশ্বকাপ দলে থাকছেন এক প্রকার নিশ্চিত ছিলো । সাদা বলের ক্রিকেটে মনযোগ দিতে লাল বলের ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়ে দিয়েছিলেন । ২০১৯ এ ১০টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলেছেন , যেখানে ৩১ গড়ে ২৪৭ রান করেছেন । স্ট্রাইকরেট ৭৫ । এছাড়া চলতি আইপিএল সফরের বাজে ফর্ম তাকে শেষ মুহুর্তে তাকে দল থেকে ছিটকে দিয়েছে । নির্বাচকরা তার বদলে বেঁছে নিয়েছেন অলরাউন্ডার বিজয় শংকরকে । যদিও তিনি রিপ্লেসমেন্ট হিসেবে স্ট্যাণ্ডবাই এর তালিকায় আছেন ।

৫। রিসাভ প্যাণ্ট ( ভারত)

ভারতের বিশ্বকাপ স্কোয়াডের সবচেয়ে বিস্ময়কর ছিলো রিশাভ প্যান্ট এর অনুপস্থিতি । সদ্য সমাপ্ত ইংল্যান্ড সফরে আর চলতি আইপিএল এ ব্যাট আর গ্লাভস হাতে দারুন সময় কাটালেও শেষ মুহূর্তে মহেন্দ্র সিং ধোনীর বদলি উইকেট রক্ষক হিসেবে অভিজ্ঞ দীনেশ কার্তিককেই বেঁছে নিয়েছেন নির্বাচকরা । পান্ট অবশ্য স্ট্যাণ্ডবাই এর তালিকায় আছেন ।

৬। এশটন টার্নার ( অস্ট্রেলিয়া )

সর্বশেষ ম্যাচেও ব্যাট হাতে দারুন পারফর্ম করে দলকে জিতিয়েছেন । ব্যাটিং এর পাশাপাশি অফ স্পিনেও তিনি মোটামুটি পারদর্শী । সম্প্রতি আইপিএল এ টানা পাঁচ ম্যাচে ডাক মারার লজ্জাজনক রেকর্ড গড়েছেন ।

৭। স্যাম কারেন ( ইংল্যান্ড)

অলরাউন্ডারে ঠাসা ইংলিশ স্কোয়াডে জায়গা মেলেনি এই তরুন অলরাউণ্ডারের , শ্রীলংকা আর ঘরের মাঠে ভারতের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে ব্যাট আর বল হাতে দারুন সময় পার করেছেন এই অলরাউণ্ডার । চলতি আইপিএল এও হ্যাট্রিক করেছেন । মূলত তিনি বেন স্টোক্স এর রিপ্লেসমেন্ট । যদিও বাঁহাতি ব্যাটসম্যান- বোলার হিসেবে ডেভিড উইলির চেয়ে আমি তাকে এগিয়ে রাখবো । কিন্ত অভিজ্ঞতার বিচারে উইলি এগিয়ে গেছেন ।

৮। জোফরা আর্চার ( ইংল্যান্ড)

বর্তমান সময়ের সেরা পেসারদের নাম বললে জোফরা আর্চার এর নাম অবশ্যই আসবে , যদিও তিনি উইন্ডীজ দলে অভিষেক করেছিলেন কিন্ত পিতা মাতার জন্ম সুত্রে ইংল্যান্ড দলে খেলার জন্য বিবেচিত হয়েছেন । জোফ্রা আর্চার এর অন্তর্ভুক্তি নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি , কিন্ত শেষ মুহুর্তে ইংলিশ নির্বাচকরা তাকে দলে রাখেন নি । এর কারণ প্রথমত তিনি আগে ইংল্যান্ড দলের হয়ে খেলেন নি , দ্বিতীয়ত , একটি বিশ্বস্ত সুত্রে জানা যায় দলের অনেকেই তার ইনক্লুশান মানতে পারেন নি । এদের মধ্যে ক্রিস ওক্স বেশ খোলামেলা ভাবেই বলেছিলেন যে নতুন কাউকে জায়গা দেয়ার জন্য যদি তার কোন টিমমেটকে অন্যায় ভাবে বাদ দেয়া হয় তাহলে তিনি সেটা মেনে নেবেন না । তাই বলে আর্চারের বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্ন শেষ হয়ে যায়নি , কেননা তাকে পাকিস্তান সিরিজের জন্য রাখা হয়েছে যাতে ড্রেসিং রুমের সাথে তিনি মানিয়ে নিতে পারেন এবং নির্বাচকরা আভাস ও দিয়েছেন ভালো পারফর্ম করলে শেষ মুহুর্তে তার জন্য দরজা খুলেও যেতে পারে ।

৯ । মোহাম্মদ আমির ( পাকিস্তান)

২০১৭ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে আমিরের সেই আগুনঝরা স্পেল সবারই মনে আছে , যদিও তারপরের ম্যাচগুলোতে তার পারফরম্যান্স খুবই হতাশাজনক । সর্বশেষ ১৪ টি ম্যাচে মাত্র ৫ উইকেট , বোলিং গড় ৯২.৬০ । যা তার নামের সাথে বড্ড বেমানান । পিসিবি তাই তার বদলে তরুণ পেসার মোহাম্মদ হাসনাইনকে দলে নিয়েছে । কিন্ত আমিরের জন্য দরজা এখনো খোলা , আসন্ন ইংল্যান্ড সিরিজে যদি ভালো কিছু করে দেখাতে পারেন তাহলে শেষ মুহুর্তে তার জন্য খুলেও যেতে পারে বিশ্বকাপের দরজা ।

১০ । তাসকিন আহমেদ ( বাংলাদেশ )

স্পীডস্টার তাসকিন আহমেদ এর ক্যারিয়ার এর গ্রাফটা বেশ উচু নিচু । ২০১৫ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের হয়ে দারুন বোলিং করেছেন , পেয়েছেন ১০ উইকেট । এরপর তাসকিন প্রায়ই নিজেকে হারিয়ে খুঁজেছেন । ইঞ্জুরি ,বিতর্ক , বাজে লাইন লেংথ সব মিলিয়ে তাসকিন প্রায় হারিয়ে যেতে বসেছিলেন । ২০১৭ এর চযাম্পিয়ন্স ট্রফিতেও ছিলেন তিনি , কিন্ত পারফর্মেন্স ছিলো হতাশাজনক । অবশেষে তাস্কিন ফিরে এসেছিলেন বিপিএল দিয়ে । কিন্ত বিধিবাম আবারো সেই ইঞ্জুরির করাল গ্রাসে শেষ মুহুর্তে বিশ্বকাপ এর টিকিট মেলেনি , আয়ারল্যান্ড সফরেও তাকে রাখা হয়নি । স্বপ্নের বিশ্বকাপ আদৌ খেলতে পারবেন কিনা তা নিয়ে রয়েছে যথেস্ট সংশয় ।

১১। জোশ হ্যাজেলউড ( অস্ট্রেলিয়া)

জোশ হ্যাজেলউড এর ভাগ্যটা খারাপই বলতে হবে , ২০১৭ এর পর অস্ট্রেলিয়ার দুঃসময়ে নিজের সেরাটা দিয়েছেন । ১৫ ম্যাচে ২৭ উইকেট , ইকোনমি ৫ এর মত । তারপরেও শেষ পর্যন্ত তাকে রাখা হয়নি বিশ্বকাপে । ইঞ্জুরিতে সাইডলাইন হয়ে যাওয়ায় , জেসন বেহেন ড্রফ আর নাথান কুল্টার নিলে কে তার জায়গায় নেয়া হয়েছে ।

১২ । নিরোশান ডিকোয়েলা ( শ্রীলংকা )

শ্রীলংকার ক্রিকেট বেশ টালমাটাল অবস্থা দিয়ে যাচ্ছে , বিশ্বকাপ স্কোয়াডে জায়গা পান নি ডীকোয়েলা । উইকেট কিপারের পাশাপাশি ওপেনিং এ আগ্রাসী সূচনা করতে তিনি দারুন সিদ্ধহস্ত । কিন্ত বাজে ফর্মের কারণে শেষমেস দলে জায়গা মেলে নি।

১৩ । দীনেশ চান্দিমাল ( শ্রীলংকা)

শ্রীলংকাকে অধিনায়কত্ব করেছেন ,কিন্ত বাজে ফর্মের কারণে শেষ মেস জায়গা মিলেনি অভিজ্ঞ এই উইকেট কিপার ব্যাটসম্যান এর ।

১৪ । শাপুর জাদ্রান ( আফগানিস্তান )

প্রায় চার বছর পরে হামিদ হাসান সুযোগ পেলেও এই বাঁহাতি নিয়মিত পেসার এর ও জায়গা মেলেনি আফগানিস্তানের বিশ্বকাপ এর দলে । বৈচিত্রপুর্ন আফগান বোলিং ইউনিট এ নিঃসন্দেহে এই বাঁহাতি পেসার ভিন্নমাত্রা যোগ করতো, কেনানা দলে নেই কোন বাঁহাতি পেসার ।

১৫ । জাহির খান ( আফগানিস্তান )

একজন লেগি ছাড়া যেকোন স্কোয়াড অসম্পুর্ন , সেখানে লেগি যদি হয় চায়নাম্যাণ তাহলে তো সোনায় সোহাগা । কিন্ত দলে জায়গা মেলেনি এই আফগান চায়নাম্যান এর । মূলত রাশিদখান,মুজিব আর নাবি স্পিন ডিপার্টমেন্ট সামলাবেন বলে তাকে আর রাখা হয়নি ।

১৪ মে,১৯৯৯ বাংলাদেশ ক্রিকেট ইতিহাসের সেরা দিন

এইমাত্র বিসিবি থেকে বিশাল সুখবর পেল "ইমরুল কায়েস"

চমক দিয়ে দল ঘোষণার সমস্ত হিসাব পাল্টে দিল পাপন। সৌম্য, লিটন, সাব্বিরের ১ ম্যাচ ভালো তো ১০ ম্যাচ খারাপ...

ভোরে নয় বাংলাদেশ সময় অনুযায়ী ত্রিদেশীয় সিরিজ যখন শুরু হবে

বিশ্বকাপের ১০ দেশের আনলাকি স্কোয়াড দেখেনিন

‘যখন শুনেছি ১৫ জনের মধ্যে আছি তখন আরেকটু বেশিই অবাক হয়েছি’

বিশ্বকাপ শুরুর আগেই ইংল্যান্ড থেকে যে বিশাল দুঃসংবাদ পেল বাংলাদেশ

লিটন না সৌম্য? বিশ্বকাপে তামিমের সঙ্গী কে? জানালেন কোচ স্টিভ রোডস!

দুইটি চমক দিয়েই বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশের ১৫ সদস্যের স্কোয়াড ঘোষণা করলো বিসিবি !

চমক দিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের জন্য উইন্ডিজের বিপক্ষে বাংলাদেশের দল ঘোষণা করলো বিসিবি !

নিজ মুখে জানিয়ে দিলেন বিশ্বকাপে যাদেরকে দলে চান তামিম ইকবাল